সিটিও ফোরাম ইনোভেশন হ্যাকাথনের তৃতীয় আসরে বিডিইউ শিক্ষার্থীদের চতুর্থ স্থান অর্জন


তরুণদের সৃজনশীলতাকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে শুরু হওয়া সিটিও ফোরাম ইনোভেশন হ্যাকাথনের তৃতীয় আসরে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে দেশের প্রথম ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ এর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আইওটি প্রোগ্রামের দ্বিতীয় বর্ষের তিন শিক্ষার্থীর একটি দল। আইওটি বেজড ক্রপ রিকমেন্ডেশন সিস্টেম এর উদ্ভাবন করে তারা এ সাফল্য অর্জন করেন। এ দলে শিক্ষার্থীরা হলেন মো.শাহারিয়ার হোসেন অপু ,তৌসিফ মাহমুদ ইমন এবং নূর-ই ফেরদাউস।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ (এআইইউবি) ক্যাম্পাসে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

 

চলতি বছরের ১৩ আগস্ট অনলাইন প্লাটফর্মে নিবন্ধন শুরু হয়ে আইডিয়া রাউন্ড,প্রোটোটাইপ রাউন্ড, অনলাইন ডেমনস্ট্রেশন ও সর্বশেষ ২৮ নভেম্বর সরাসরি উপস্থাপনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতাটি শেষ হয়। ‘ক্ষুধামুক্ত বিশ্ব, সুস্বাস্থ্য, গুণগত শিক্ষা, ই-কমার্স, এমার্জিং টেকনোলজি, ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্স, অনলাইন সার্টিফিকেট ভেরিফিকেশন’-এমন ১১টি চ্যালেঞ্জ নিয়ে শুরু হওয়া জাতীয় পর্যায়ের ভার্চুয়াল ইনোভেশন হ্যাকাথন নিবন্ধন করে প্রায় ১২৪ আইডিয়া। এর মধ্য থেকে ৫০ জন বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষকদের নিয়ে জুরি বোর্ড ও ২০ জন ইন্ডাস্ট্রি এক্সপার্ট বোর্ডের সদস্যের বিভিন্নভাবে বাছাই করা ৪১টি আইডয়া নিয়ে শুরু হয় এ হ্যাকাথন।

প্রতিযোগিতায় টিম বিডিইউ ফিনিক্সকে সার্বিক দিকনির্দেশনা এবং সহায়তা প্রদান কনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি,বাংলাদেশ এর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের চেয়ারম্যন সামছুদ্দীন আহমেদ এবং টিম মেন্টর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রভাষক সুমন সাহা।
প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে চতুর্থ স্থান অর্জন করায় শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম।