শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের সাথে বিডিইউ উপাচার্যের মতবিনিময়


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের সাথে মতবিনিময় করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড.মুনাজ আহমেদ নূর।

শনিবার (০৯.১১.২০১৯) বিকেল ৪টার বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস গাজীপুরের কালিয়াকৈর এ একাডেমিক ভবনে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো:আশরাফ উদ্দিন সহ শিক্ষক, কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভার শুরুতে মাননীয় উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক কার্যক্রম ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক শিক্ষার্থীদের প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা নিয়ে আলোচনা করেন।

সভায় শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করায় ডিজিটাল বাংলাদেশ এর রূপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানন।পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জন্য হোস্টেল, সার্বিক নিরাপত্তা, যাতায়াত ব্যবস্থা, স্বাস্থ্য সেবা, উন্নতমানের লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠার বিষয়ে মাননীয় উপাচার্যের নিকট অহবান জানান।

শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা এই আয়োজনের জন্য মাননীয় উপাচার্যকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন,এই আয়োজনের মধ্যদিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আমাদের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হলো।আমরা প্রতিবছর এই ধরনের আয়োজন আশা-করবো। 

মাননীয় উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশের তরুণ শিক্ষার্থীদের চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে নেতৃত্ব দানের উপযোগী করে গড়ে তুলতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন।প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই শিক্ষার্থীদের সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা প্রদানের চেষ্টা করছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সটি,বাংলাদেশ।আমরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রয়োজনের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা করেছি। শিক্ষার্থীদের জন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে হোস্টেল এর কাজ শুরু হয়েছে।বাংলাদেশ বিম্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন এ ব্যাপারে সর্বাত্মক সহায়তা করার আশ্বাস দিয়েছেন।শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে কালিয়াকৈর থানার সাথে আমাদের সার্বাক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে।মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব আ .ক.ম.মোজাম্মেল হক এ ব্যপারে সকল ধরনের সহায়তা প্রদান করছেন। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সেবার বিষয়ে আমরা সর্বদা তৎপর। আগামী বাজেটে শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স কেনার পরিকল্পনা রয়েছে।যার মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা সেবা প্রদান করা সম্ভব হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য অত্যাধুনিক লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠার কাজ শুরু হয়েছে।